For Advertisement

এতবড় পরাজয়ের পর কেমন ছিল মেসির অবস্থা?

১৫ আগস্ট ২০২০, ৯:০৬:০৮

কখনো কি লিওনেল মেসি ভাবতে পেরেছিলেন, ক্যারিয়ারের একেবারে শেষ দিকে এসে এতবড় লজ্জার মুখোমুখি হবেন! দলের মধ্যে সমস্যা আছে। আগের তুলনায় খুব ভালো খেলতে পারছে না বার্সেলোনা, এটা সবার জানা ছিল। বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে জয়টা হবে কঠিন। হারতেও হতে পারে। কিন্তু সেটা এত বড় ব্যবধানে! ৮-২ গোলের লজ্জার ইতিহাস তৈরি করা ব্যবধানে হারতে হবে, এটা কে ভাবতে পেরেছিল?

লিওনেল মেসি মোটেও ভাবতে পারেননি। পুরো ফুটবল বিশ্বের কাছেই অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে, মেসির দল এতগুলো গোল হজম করলো! বেশ কয়েকটি মিস না হলে লজ্জার পরিমাণটা আরো বাড়তে পারতো।

৮-২ গোলে হারের পর মাঠেই দেখা গিয়েছিল লিওনেল মেসিদের অসহায় মুখের অবস্থা। নিজেদের কাছেই তারা লজ্জিত। এতবড় হারের কোনো জবাব খুঁজে পাচ্ছে না কেউ। কেন, এত বড় পরাজয়?

ম্যাচ শেষে দ্রুততার সঙ্গেই ড্রেসিং রুমে ফিরে যান মেসি অ্যান্ড কোং। লজ্জার ইতিহাসের অংশীদার হয়ে মাঠে বেশিক্ষণ থাকা যায় না। কিন্তু ড্রেসিংরুমে যাওয়ার পর কি অবস্থা ছিল বিশ্বের সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসির?

স্প্যানিশ মিডিয়াগুলো জানাচ্ছে, ড্রেসিংরুমে সম্ভবত এই প্রথম এমন বিধ্বস্ত দেখা গেছে মেসিকে। মাদ্রিদ ভিত্তিক মার্কা লিখেছে, ‘ড্রেসিং রুমে কোনোভাবেই মেসি নিজের বিধ্বস্ত চেহারা লুকাতে পারেননি।’

মেসি কোনোভাবেই পারেননি ভাবারিয়ানদের সম্মিলিত আক্রমণ ঠেকাতে। একতরফা কোয়ার্টার ফাইনালে পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে বিদায় নিতে হয়েছে বার্সাকে।

ম্যাচের পর মেসিদের ড্রেসিংরুমের একটি ছবি প্রকাশ হয়েছে। যেটাতে দেখা যাচ্ছে, বিধ্বস্ত মেসি নির্বাক বসে আছেন। যা ঘটে গেছে কিছুক্ষণ আগে, সেটা হয়তো কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তিনি। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগানের কাছাকাছি তিনি। স্টেগান ড্রেসিংরুমের দরজায় দাঁড়িয়ে, উদাস দৃষ্টিতে অন্যদিকে তাকিয়ে আছেন। মেসি ভেতরে বসে আছেন পুরোপুরি বিধ্বস্ত ভঙ্গিতে।

২০০৬/০৭ সালের পর এই প্রথম একটি মৌসুম পার করছেন মেসি, যেটাতে কোনো শিরোপাই জেতেননি। কিন্তু তার চেয়েও বড় কথা, বায়ার্নের কাছে এতবড় হারের হৃদয়ে যে ব্যথা পেয়েছেন, সেটা উপশম হতেও অনেক বেশি সময় লাগার কথা।

ব্রিটিশ মিডিয়া জানাচ্ছে, বায়ার্নের কাছে প্রথমার্ধে ৪ গোল খাওয়ার পরও ড্রেসিং রুমে পুরোপুরি বিধ্বস্ত দেখা গেছে মেসিকে। তাকে দেখে মনে হচ্ছিল, তিনি বার্সার কেউ নন। অনাহুত কেউ চলে এসেছেন এবং চরম বাজে একটা পরিস্থিতির শিকার হয়ে বসে আছেন।

For Advertisement

Unauthorized use of news, image, information, etc published by Protichhobi | Bangla News World Wide is punishable by copyright law. Appropriate legal steps will be taken by the management against any person or body that infringes those laws.

Comments: